ঢাবিতে ‘বৃহন্নলা, এর উদ্যোগে ২দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

22
ঢাবি

মোঃ ইলিয়াস হোসেন,(ঢাবি প্রতিনিধি): ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃহন্নলার উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় ২ দিনের একটি প্রশিক্ষণ কর্মশালা।

একীভূত সমাজ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে গড়ে ওঠা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের গঠিত সংগঠন ‘বৃহন্নলা’ ও গ্লোবাল প্লাটফর্ম বাংলাদেশ যৌথভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ শিক্ষার্থীদের জন্য এবার আয়োজন করেছে ২ দিন ব্যাপী ”জেন্ডার সংবেদনশীল জনসেবায় সামাজিক নিরীক্ষা” বিষয়ক একটি প্রশিক্ষণ কর্মশালার।

বৃহন্নলার উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রশিক্ষণ কর্মশালাটি ১৭ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং তারিখ সকাল ৯ টায় অত্যান্ত জাঁকজমকপূর্ণ উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এবং ১৮ই ডিসেম্বর বিকাল ৬টার দিকে সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের বিশেষ সার্টিফিকেট প্রদানের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

২দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন ঢাবির শিক্ষা ও গবেষণা ইনিস্টিটিউটের বিশেষ শিক্ষা বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান
,আরো প্রশিক্ষক ছিলেন, মো: রনি মৃধা (মাস্টার ট্রেইনার ব্রেকিং দ্যা সাইকেল প্রজেক্ট ) , শেখ মারুফা নাবিলা( মাস্টার ট্রেইনার ব্রেকিং দ্যা সাইকেল প্রজেক্ট), বৃহন্নলার প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মোঃ সাদিকুল ইসলাম এবং মানবাধিকারকর্মী জয়া শিকদার।এছাড়াও কর্মশালাটিতে উপস্থিত ছিলেন মো আরিফুল হক শানিল, এবং বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরামের সভাপতিসহ অন্যান্য সদস্যরা।
প্রশিক্ষন কর্মশালাটিতে অংশগ্রহণ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ৪০জন শিক্ষার্থী।

আরও খবর  ইগো বুস্ট করতে কেউ তেল চায়, কেউ সে’ক্স: শ্রীলেখা মিত্র

জানা যায় যে, উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালাটির উদ্দেশ্য ছিলো-
জেন্ডার সংবেদনশীল জনসেবা, অধিকার, সামাজিক নিরীক্ষা ও কর্মমুখী শিক্ষা সম্পর্কে রাষ্ট্রীয় নীতিমালা ও দায়িত্বাবলী সম্পর্কে সমসাময়িক ধারণা অর্জন| জেন্ডার সংবেদনশীল জনসেবা সম্পর্কে তরুণ হিসেবে নিজেদের আচরণ ও দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন সাধন| জেন্ডার সংবেদনশীল জনসেবা নিশ্চিতকরণে সামাজিক নিরীক্ষা বাস্তবায়নের দক্ষতা অর্জন।

বৃহন্নলা কর্তৃক আয়োজিত এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে জানা যায় যে,“ ২ দিন ব্যাপী কর্মশালাটি তাদের মনের চোখকে খুলে দিয়েছে। তারা আগে সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের নিয়ে তেমন চিন্তা করতো না। বৃহন্নলার প্রশিক্ষণে এসে তাদের চিন্তা-ভাবনায় অনেক পরিবর্তন এসেছে এবং তারা সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের নিয়ে কাজ করার অঙ্গীকার করেছে।কিভাবে দেশের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কাজ শুরু করতে পারেন এবং সমস্যাগুলো কিভাবে চিহ্নিত করবেন এ সম্পর্কে সুস্পষ্ট পদ্ধতি নিজেরা বের করতে শিখেন তারা |”