অনিশ্চয়তার মধ্যে আওয়ামী লীগ – ড. কামাল

30
আওয়ামীলীগ

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন অভিযোগ করেছেন, সরকার আবারও যেনতেন নির্বাচন করার ‘পাঁয়তারা’ করছে। তিনি বলেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন দেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ নির্বাচন সুষ্ঠু করার মাধ্যমে জনগণ রাষ্ট্রের মালিকানা ফিরে পাবে। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে জনগণকে পাহারাদার হতে হবে।’

বুধবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে পুরানা পল্টনে ঐক্যফ্রন্টের নতুন কার্যালয়ের উদ্বোধন শেষে এসব কথা বলেন ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, ‘যখনই আমরা নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলাম, তখন থেকেই আওয়ামী লীগ অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে যায়।’

ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘২০১৪ সালে যেনতেন নির্বাচন করে আওয়ামী লীগ পাঁচ বছর ক্ষমতা ভোগ করেছে। কথা ছিল মধ্যবর্তী নির্বাচনের। কিন্তু তা তারা দেয়নি।’
গণফোরাম সভাপতি বলেন, ‘সাংবাদিকরাও অবাধ নির্বাচনের পাহারাদার হিসেবে ভূমিকা রাখতে পারেন। যখনই আমরা নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলাম, তখন থেকেই আওয়ামী লীগ অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে যায়।’

আরও খবর  কোটা বাতিলের প্রস্তাবে মন্ত্রিসভার অনুমোদন।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর প্রমুখ।

নির্বাচনকে সামনে রেখে গত ১৩ অক্টোবর গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ড. কামাল হোসেন। এ জোটে বিএনপি ছাড়াও রয়েছে গণফোরাম, নাগরিক ঐক্য, জাসদ, কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগসহ সরকারবিরোধী কয়েকটি দল। আসন্ন নির্বাচনে জোটগতভাবে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।