মোঃ আরিফুর রহমান ঝন্টু, দশমিনা প্রতিনিধি:পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলা পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন কর্মসূচী পদাবিকের এক মাঠ সংগঠক নির্মল দাস,উপজেলার বেশ কয়েকজনের কাছ থেকে ৪০ লক্ষাধিক টাকা নিয়ে লাপাত্তা হয়েছে বলে জানা গেছে। জানাগেছে উপজেলার বিভিন্ন সমিতির লোন রিকভারি করার জন্য উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের মোঃ মোফাজ্জেল হোসেন মাস্টারের নিকট থেকে বিভিন্ন

সময় নগদ ৮, ২৫,০০০ আট লক্ষ পচিশ হাজার টাকা,জহিরুল ইসলামের নিকট থেকে ৩ লক্ষ টাকা ,সদর ইউনিয়নের নলখোলা বন্দরের অশীম চন্দ্র শীলের ১৪,০০০০০০ চৌদ্দ লক্ষ টাকা, ডাক্তার আমীর হোসেনের নিকট থেকে ৩লক্ষ ৫০ হাজার টাকা,বাশার হাওলাদারের নিকট থেকে ১লক্ষ ১০ হাজার টাকাসহ আরো কয়েক জনের ছোট বড় অংক মিলিয়ে প্রায় ৪০ লক্ষাধীক টাকা নিয়ে পালিয়েছে নির্মল দাস নামের এই পদাবিকের মাঠ সংগঠক।

এমর্মে অত্র অফিসের এআরডিও শেখ জাহাঙ্গীর কবির বলেন,নির্মলের সাথে বাহিরের কারো কোন লেনদেন আছে কি না, তা আমার জানা নাই। এবং ইতিপূর্বে কোন লোক কোন দিন কোন অভিযোগও জানায়নি। অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,হ্যা আমারা সমিতির বিষয় প্রত্যেক সমিতির খাতাপত্র তদন্ত করতেছি। দেখা যাক কোন কিছু পাওয়া যায় কিনা।

আরও খবর  দশমিনায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা এক শিশুর মৃত্যু

এ ব্যাপারে এলাকার বিভিন্ন জনেরাও বিষয়টি নিয়ে বেশ টি স্টলগুলো মাতিয়ে রেখেছেন। কারো কারো মতে যাহারা সংশ্লিলিষ্ট দপ্তরের কোন কর্মকর্তার অনুমতি বেতিরেকে একজন সম্পুর্ন অপরিচিত লোকের সাথে কেন এত বড় মোটা অংকের টাকার লেনদেন করলো,তাহাও খতিয়ে দেখা দরকার।