আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের হোন্ডা ভাংচুর

68

ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার সদর উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ভোলা জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের সেক্রেটারী মো: আজিজুল ইসলামের হোন্ডাটি আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।গতকাল বুধবার (২৪ অক্টোবর) মধ্য রাতে তার সদর উপজেলার গাজীপুর রোডস্থ বাসায় এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, রাতে তার বাসার কলাপসেপল গেইট এর তালা ভেঙ্গে মাহিন্দ্রা হোন্ডাটি দূর্বৃত্তরা নিয়ে যায় এবং বাসা থেকে দেড়শত গজ দূরে নিয়ে হোন্ডাটি আগুনে পুড়িয়ে দেয়। এ ঘটনাকে ভাবিয়ে তুলছে সকলকে। এক বছর আগে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি মহোদয় কর্তৃক প্রদানকৃত উপহার স্বরুপ সাংগঠনিক কাজের জন্য ব্যবহার করেন এ হোন্ডাটি। তবে অভিযোগের প্রেক্ষিতে সকালেই ভোলা সদর মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো: ছগির মিয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এলাকাবাসি জানান, আমরা আজ হতভম্ব। আমাদের ধারনা এটি পরিকল্পিতভাবে ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শান্তিপূর্ণভাবে আমরা এখানে বসবাস করতে চাই। তাই প্রশাসনের একটু সু-দৃষ্টি কামনা করছি। এখানে নতুন একটি রাস্তা হওয়াতে সারা রাতই মাদকের আখড়া চলে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।
ভোলা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: আজিজুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, আমাকে যে পরিকল্পিতভাবে হুমকি দেয়া হলো এনিয়ে আমার কেনো সন্দেহ নেই। কারন আমি তোফায়েল আহমেদের পক্ষে সারাদিন রাত কাজ করি। এর আগেও বিরোধী দলের সময় অনেক অত্যাচার নির্যাতন আমাকে সহ্য করতে হয়েছে। এখন আবার এধরনের হুমকি পরিবারের জন্য অসুভ লক্ষণ।
এ ব্যাপারে ভোলা থানার ওসি ছগির মিঞা ও ভোলা ডিবি পুলিশের ওসি শহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ বিষয়ে ভোলা সদর মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো: ছগির মিয়া বলেন, আমরা আলামত জব্দ করেছি। মামলা প্রক্রিয়াধীন চলছে।
এদিকে, এ ঘটনায় ভোলা জেলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আবদুল মমিন টুলু, পৌর মেয়র আলহাজ্ব মোহাঃ মনিরুজ্জামান, জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউনুছ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তারা এক বিবৃতিতে রাতের আধারে এ ধরণের ঘৃণ্য অপরাধের তীব্র নিন্দা জানান। ন্যাক্কারজনক এই ঘটনার সাথে জড়িত সকল অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন।