ঘূর্ণিঝড় তিতলি শেষ ধেয়ে আসছে গাজা

132

বর্তমানে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ শেষ, এখন নতুন করে আসছে ঘূর্ণিঝড় গাজা। জানা যাচ্ছে এদিকে তিতলি উপকূলে আঘাত হানার পর দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে তিতলির প্রভাবে এখনও সারা দেশে ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। এরআগে ভারতের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের অন্ধ্রপ্রদেশে অন্তত ৮ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে ঘূর্ণিঝড় তিতলি।

এদিকে জানা যাচ্ছে ধেয়ে আসছে আরও পাঁচটি ঘূর্ণিঝড়। এমনটাই জানাচ্ছে কেন্দ্রীয় হাওয়া অফিস। একদিকে তিতলি শেষ হতে না হতেই, অন্যদিকে আসছে গাজা। এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৫টার মধ্যে অন্ধ্রপ্রদেশের পার্শ্ববর্তী উড়িষ্যায় আঘাত হানে তিতলি। এ সময় ঘণ্টায় ১২৫ কিলোমিটারের বেশি বেগে বাতাসের পাশাপাশি ভারি বৃষ্টিপাত হয়।

এদিকে তিতলির প্রভাবে বাংলাদেশের পটুয়াখলীসহ উপকূলের বেশ কিছু নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বর্তমানে ঘূর্ণিঝড় তিতলি ছাড়াও এই একই সময়ে বিশ্বে আরও দু’টি ঘূর্ণিঝড় সক্রিয় অবস্থায় রয়েছে। এরমধ্যে ঘূর্ণিঝড় মাইকেল যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হেনেছে। আর কঠিন রূপ ধারণের অপেক্ষায় রয়েছে ঘূর্ণিঝড় লুবান। এটিও আঘাত হানতে পারে ভারতে।

তাছাড়া বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার আঞ্চলিক কমিটি একেকটি ঝড়ের নামকরণ করে। ভারত মহাসাগরের ঝড়গুলোর নামকরণ করে এই সংস্থার আট দেশ- বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, মায়ানমার, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড এবং ওমান। এসব দেশের প্রস্তাব অনুসারে একটি তালিকা থেকে একটির পর একটি ঝড়ের নামকরণ করা হয়। যেমন তিতলির নামকরণ করেছে পাকিস্তান।

তিতলি শব্দের অর্থ প্রজাপতি।এরপরের ঝড়টির নাম হবে গাজা। এ নামটি প্রস্তাব করেছিল থাইল্যান্ড। এ ছাড়া এ অঞ্চলের জন্য আরও ৯টি ঘূর্ণিঝড়ের নাম ইতোমধ্যে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যেগুলো থেকে পর্যায়ক্রমে একেকটি ঝড়ের নামকরণ করা হবে। গাজার পর আসবে ফেতাই। এ নামটি শ্রীলঙ্কার দেয়া। বর্তমানে বর্তমানে তিতলি গভীর নিম্নচাপ থেকে নিম্নচাপ থেকে একটি সুস্পষ্ট নিম্নচাপে পরিনত হয়েছে। আরও শক্তি ক্ষয় করেছে। তাছাড়া গত ছয় ঘণ্টায় আরও উত্তর পূর্ব দিকে এগিয়ে গিয়েছে।

এরপরেই শক্তি ক্ষয় করেছে সেটি।আজ দুপুর থেকে বৃষ্টি একেবারেই কমে যাবে বলে জানাচ্ছে আবহাওয়া অফিস। তবে সমুদ্রে এখনও যেতে নিষেধ করেছে আবহাওয়া অফিস। কারন উপকূলীয় অঞ্চলে এখনও ঘণ্টায় ৩৫ থেকে ৫৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতিবেগে হাওয়া বইবে। এর জন্য আপাতত সকল নৌযান চলাচল বন্দ রাখতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।